মার্কিন মতলবীদের হাত পা ঘুড়িয়ে দেওয়া হবে -এরদোগান

আবার ও তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যিপ এরদোগান যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে কড়া হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন, মার্কিন মদদপুষ্ট সন্ত্রাসীদের হাত-পা ভেঙে দেয়াহবে। শনিবার জাস্টিস অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট পার্টি বা একেপির সদস্যদের এক সমাবেশে বক্তব্য দেয়ার সময় এরদোগান এ হুমকি দেন, তুরস্কের দক্ষিণাঞ্চলীয় কাহরামানমারাস প্রদেশে ক্ষমতাসীনদের এ সমাবেশে অনুষ্ঠিও হয় । খবর পার্সটুডের।

গত মাসে সিরিয়ায় মার্কিন সমর্থিত কুর্দি গেরিলা গোষ্ঠীদের নিয়ে ৩০ হাজার সৈন্যের একটি আধা-সামরিক বাহিনী গঠনের পরিকল্পনার কথা জানিয়েছিল ওয়াশিংটন । ওয়াশিংটন এমন উদ্যোগে এরদোগান সরাসরি যুক্তরাষ্ট্র নাম উল্লেখ না করে বলেন, ‘সীমান্ত এলাকায় সন্ত্রাসী বাহিনী মোতায়েনের মাধ্যমে তারা আমাদের ভাই ও বোনদেরকে আলাদা করতে চাইছে। তারা নিজেদের স্বার্থে সন্ত্রাসী গোষ্ঠীগুলোকে অস্ত্র সরবরাহ করতে কার্পণ্য করছে না।’

তিনি বলেন, ‘ওয়াশিংটন হয়ত জানে না যে, তারা আমাদের সীমান্তে যে কাঠামো প্রতিষ্ঠা করতে চাইছে তা আমরা ভেঙে গুঁড়িয়ে দেব।’

সিরিয়ার কুর্দি গেরিলাগোষ্ঠী ওয়াইপিজিকে নিজেদের মিত্র হিসেবে বিবেচনা করে আসছে আমেরিকা। কথিত সিরিয়ার আসাদ বিরোধী সিরিয়ান ডেমোক্রেটিক ফোর্সেস বা এসডিএফ সন্ত্রাসীদের প্রশিক্ষণ এবং অস্ত্র দিয়েও সহায়তা করছে ওয়াশিংটন।

রাস্তায় কেন? ঘরে বসে আন্দোলন করুন: কাদের

রাস্তা বন্ধ করে কোনও সভা-সমাবেশ করা যাবে না। বিএনপি শান্তিপূর্ণ আন্দোলনের কর্মসূচিকে সংঘর্ষের দিকে নিয়ে যাচ্ছে। আপনারা যদি শান্তিপূর্ণ আন্দোলন করেন, তাহলে ঘরে বসে আন্দোলন করুন, অফিসে করুন। রাস্তায় কেন? জনদুর্ভোগ সৃষ্টি করছেন কেন?’

বললেন সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

রোববার বিকেলে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনের (আইইবি) সেমিনার হল রুমে আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক উপ-কমিটির প্রথম সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘রাস্তা বন্ধ করে কোনও সভা-সমাবেশ করা যাবে না। আপনারা ঘণ্টার পর ঘণ্টা রাস্তা বন্ধ করে আন্দোলন করে মানুষের দুর্ভোগ সৃষ্টি করছেন।’ তিনি আরও বলেন, ‘শান্তিপূর্ণ আন্দোলনের নামে অশান্তিপূর্ণ ক্ষেত্র তৈরি করছেন। ৫ জানুয়ারি মতো কার্যক্রম করা কি শান্তিপূর্ণ আন্দোলন?’

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘খালেদা জিয়ার জেলে থাকা শর্ট, মিড, না লং ট্রাম হবে, তার সিদ্ধান্ত নেবেন আদালত। খালেদা জিয়া এখন উচ্চ আদালতে আপিল করেছেন। উচ্চ আদালত যদি জামিন দেন, তাহলে তো আমাদের কিছু করার নেই। যদি আদালত অনুমতি দেন, তাহলে নির্বাচনে অংশ নিলেও আমাদের কিছু করার নেই। এর সঙ্গে আমাদের কোনও সম্পর্ক নেই।’

তিনি বলেন, ‘খালেদা জিয়া জামিন পেলে নিয়ম অনুযায়ী পাবেন। না পেলে আদালত দেখবেন। এখানে সরকারের কোনও হস্তক্ষেপ নেই। আমাদের নেত্রী বলেছেন, অপকর্ম অপকর্মই আর অপরাধ অপরাধই।কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না।’

সাধারণ সিগারেটের চেয়ে বেশী ক্ষতিকর ই-সিগারেট

ধুমপান মানুষের ক্রোমিয়াম ও নিকেল শ্বাসনালীর অসুখ ও ফুসফুসের ক্যান্সারের হওয়ার জন্য দায়ী।পাশাপাশি এটি সীসা স্নায়ুর ও রক্তনালীর বিভিন্ন অসুখের জন্য দায়ী। ধারনা করা হয় সাধারণ সিগারেটের চেয়ে ই-সিগারেট কম ক্ষতিকর মনে করা হলেও প্রকৃতপক্ষে সে সত্য নয়।

সাম্প্রতিক একটি গবেষণায় দেখা গেছে, ই-সিগারেট সেবনকারীরা ধোঁয়ার সাথে সীসা, ক্রোমিয়াম, এবং আর্সেনিকের মতো বিষাক্ত পদার্থ গ্রহণ করেন।

এনভায়রনমেন্টাল হেলথ পার্স্পেক্টিভস জার্নালে গত বুধবার প্রকাশিত একটি গবেষণাপত্রে একথা জানানো হয়।

যুক্তরাষ্ট্রের জন হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়য়ের ব্লুমবার্গ স্কুল অফ পাবলিক হেলথ ৫৬টি ভ্যাপিং ডিভাইস বা ই-সিগারেট সেবনের যন্ত্র পরীক্ষা করে এই সিদ্ধান্তে উপনীত হন।

গবেষকরা সত্যিকারের ভেপারদের কাছ থেকে ওইসব যন্ত্র সংগ্রহ করেন। আগে বিভিন্ন গবেষণায় কেবল নতুন ই-সিগারেট পরীক্ষা করা হতো। কিন্তু, ভেপাররা যেসব যন্ত্র নিয়মিত ব্যবহার করেন সেগুলো পরীক্ষা করতে চাইছিলেন জন হপকিন্সের গবেষকেরা।

গবেষণাপত্রটির লেখকেরা ই-সিগারেটের তিনটি জিনিস পরীক্ষা করেছেনঃ এতে ব্যবহৃত নিকোটিন যুক্ত তরল, যন্ত্রের পেন চেম্বারে থাকা তরল, এবং এর এরোসল বা ভ্যাপর। যন্ত্রটিতে থাকা যে ধাতব কয়েল তরলকে বাষ্পে পরিণত করে তা থেকে কোনওভাবে বিষাক্ত পদার্থ নির্গত হয় কিনা তা নিশ্চিত হতে চাইছিলেন গবেষকেরা।

গবেষকরা দেখতে পান তাদের অনুমানই ঠিক। ই-সিগারেটের তরলে আর্সেনিক ছাড়া অন্য বিষাক্ত ধাতব পদার্থ উল্লেখযোগ্য পরিমাণে খুঁজে পাননি তারা। কিন্তু, অর্ধেকেরও বেশি ডিভাইসের তরল রাখার চেম্বার বা ট্যাঙ্ক ও এরোসলে প্রচুর পরিমাণে ক্রোমিয়াম, নিকেল, ও সীসা পান তারা।

গবেষকরা বলছেন, ক্রোমিয়াম ও নিকেল শ্বাসনালীর অসুখ ও ফুসফুসের ক্যান্সারের জন্য দায়ী। সীসা স্নায়ুর ও রক্তনালীর বিভিন্ন অসুখের জন্য দায়ী।

গবেষক অ্যানা মারিয়া রুলে বলেন, ‘ই-সিগারেট নির্মাতা ও সেবনকারীদের জানা উচিত যে, এগুলোর হিটিং কয়েল এখন যেভাবে তৈরি হচ্ছে, তাতে সেগুলো থেকে বিষাক্ত ধাতব পদার্থ সেবনকারীদের শরীরে প্রবেশ করছে।’

গবেষকরা ই-সিগারেটগুলোতে দশ শতাংশেরও বেশি আর্সেনিক দেখতে পান। ই-সিগারেটের তরল, রিফিল চেম্বার ও এরোসলেসহ সব জায়গাতেই আর্সেনিক রয়েছে। ই-সিগারেটের হিটিং কয়েল থেকে বিষাক্ত ধাতু নির্গত হওয়ার সম্ভাবনা থাকলেও, এর সেবনযোগ্য তরলে কীভাবে আর্সেনিক এল তা ব্যাখ্যা করতে পারেনি কেউ।

জন কেরিকে যে কারণ বাজে বললেন ট্রাম্প

ইরানের সঙ্গে পরমাণু চুক্তি ইস্যুতে শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরির কড়া সমালোচনা করলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। আমার দেখা সবচেয়ে বাজে সমঝোতাকারী জন কেরি। এমনটা বললেন দেশটির বর্তমান প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।পাশাপাশি পরমাণু চুক্তি ইস্যুতে সমর্থন দেয়ায় সাবেক প্রেসিডেন্ট ওবামারও সমালোচনা করেন ট্রাম্প।

কনজারভেটিভ পার্টির বার্ষিক সম্মেলনে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বলেন, আমার দেখা সবচেয়ে বাজে সমঝোতাকারী জন কেরি। ইতিহাসে তিনি সবচেয়ে খারাপ একটি চুক্তি করেছেন। তারপরও আমরা একমুখী চুক্তিকে ভয়ানক বলতে অস্বীকার করি।

ট্রাম্প আরও বলেন, ওই চুক্তিটা ছিল খুবই ভয়ংকর।

ট্রাম্প কেরি ও ওবামাকে ইঙ্গিত করে বলেন, কীভাবে তারা এমন একটা বাজে চুক্তি করলেন?

বর্তমান মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেন, আমেরিকার শত্রুদের এমন শিক্ষা দেওয়া হবে যা আগে কখনো তারা কল্পনাও করেননি।

উল্লেখ্য, ইরানের সঙ্গে পরমাণু চুক্তি হয়েছিল যুক্তরাষ্ট্র, চীন, রাশিয়া, ফ্রান্স, যুক্তরাজ্য ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের।

আইসিসিকে কোন পাত্তাই দিলো না ভারত

ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিলের (আইসিসি) আগামী ২২ থেকে ২৬ এপ্রিল ভারতের কলকাতায় অনুষ্ঠিত হবে বার্ষিক সাধারণ সভা। আর সে সময় চলবে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগও (আইপিএল)।

তা্‌ই আইসিসি অনুরোধ করেছিল, সে সময় যেন আইপিএলের একটা ম্যাচ কলকাতায় আয়োজন করে। কিন্তু বোর্ড অব কন্ট্রোল ফর ক্রিকেট ইন ইন্ডিয়া (বিসিসিআই) আইসিসির অনুরোধকে পাত্তাই দিলো না।

বিসিসিআই’র এক শীর্ষস্থানীয় কর্মকর্তা নাম না প্রকাশের শর্তে জানান, ২২ থেকে ২৬ এপ্রিলের মধ্যে কলকাতায় আইপিএলের একটি ম্যাচ দেখতে চেয়েছিল আইসিসির সদস্যরা। কিন্তু সে সময় ইডেন গার্ডেনসে কলকাতা নাইট রাইডার্সের কোনো ম্যাচ নেই।

তিনি আরও জানান, আইপিএলের একটা ম্যাচের সময় এদিক-ওদিক করতে গেলেই পুরো ফিক্সচারের ওপর প্রভাব পড়বে। তাই আমরা তাদের বলে দিয়েছি যে আইপিএলের ম্যাচ নতুন করে নির্ধারণ করা সম্ভব না।

আইপিএলের শিডিউল অনুযায়ী, ১৬ এপ্রিল হোম ম্যাচ খেলার পর আবার ৩ মে কলকাতা নাইট রাইডার্সের খেলা। ২২ থেকে ২৬ এপ্রিলের মধ্যে হায়দরাবাদ, মুম্বাই, ইন্দোর, বেঙ্গালুরু ও জয়পুরে খেলা রয়েছে।

এদিকে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের চেয়ারম্যান নজম শেঠির ভারতের ভিসা পাওয়া নিয়ে সমস্যা রয়েছে। যদি তিনি ভিসা না পান, তাহলে আগামী সেপ্টেম্বরে এশিয়া কাপে পাকিস্তান দলের আসাটাও প্রশ্ন দেখা দেবে।

বাংলাকে জাতিসংঘের দাপ্তরিক ভাষা করতে সাতক্ষীরায় ভোট শুরু

‘অনেক কষ্ট আর রক্তের বিনিময়ে অর্জিত আমাদের এ বাংলা ভাষা। পৃথিবীর অন্য কোথাও ভাষার জন্য কেউ কখনো জীবন দেয়নি। একমাত্র বাঙালি জাতিই ভাষার জন্য জীবন উৎসর্গ করেছে। সেই ভাষাকে জাতিসংঘের সপ্তম দাপ্তরিক ভাষা হিসেবে স্বীকৃতি প্রদান করা এখন সময়ের দবি।’

সোমবার সকাল ১০টায় সাতক্ষীরা সরকারি কলেজ শহীদ মিনার চত্বরে ‘জাতিসংঘের সপ্তম দাপ্তরিক ভাষা বাংলা চাই’ ক্যাম্পেইনের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে সাতক্ষীরা সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ সুবেদ কুমার দেবনাথ এসব কথা বলেন।

satkhira-jago-1

তিনি আরও বলেন, জাতিসংঘে কয়টি ভাষার ব্যবহার হয় সেটিও এতদিন আমাদের অজানা ছিল। তবে জাগো নিউজের মাধ্যমে বিষয়টি জানতে পারাসহ এমন উদ্যোগ গ্রহণ করায় জাগো নিউজকে আন্তরিক ধন্যবাদ। একইসঙ্গে জাতিসংঘের সপ্তম দাপ্তরিক ভাষা হিসেবে বাংলাকে প্রতিষ্ঠিত করার জোরালো দাবি জানাচ্ছি।

উপাধাক্ষ্য আফজাল হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন প্রভাষক মনিরুল ইসলাম, শাহিনুর রহমানসহ অন্যান্য শিক্ষকরা। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন জাগো নিউজের সাতক্ষীরা প্রতিনিধি আকরামুল ইসলাম।

satkhira-jago-2

আলোচনা শেষে প্রধান অতিথি জাতিসংঘে বাংলা চাই সমর্থনে ভোট প্রদান করে আনুষ্ঠানিকভাবে ভোট প্রদান উদ্বোধন করেন। এরপর বিশেষ অতিথিবৃন্দ ও কলেজের শিক্ষার্থীরা ভোট প্রদান করেন।

এ সময় সাংবাদিক সাদিকুর রহমান, তোহা খান, কামরুল হাসান, জাহিদ হুসাইন, আবু সাঈদসহ বিভিন্ন ইলেকট্রিক ও প্রিন্ট মিডিয়ার সাংবাদিকসহ কলেজের শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

শিল্পখাতে প্রভূত অগ্রগতি অর্জিত হয়েছে : শিল্পমন্ত্রী

বিগত কয়েক বছরে বাংলাদেশের শিল্পখাতে প্রভূত অগ্রগতি অর্জিত হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু। এর ফলে জিডিপিতে শিল্পখাতের অবদান ৩২ শতাংশ ছাড়িয়ে গেছে। ইতোমধ্যে দেশে প্রায় ১০ লাখ ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প গড়ে ওঠেছে। এসব এসএমই শিল্প ডিজিপিতে শতকরা ২৩ ভাগ এবং মোট শিল্প কর্মসংস্থানে শতকরা ৮০ ভাগ অবদান রাখছে।

শনিবার ভারতের নয়াদিল্লির হোটেল তাজ প্যালেসে আয়োজিত ‘ব্যবসাবান্ধব পরিবেশ সৃষ্টির মাধ্যমে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি অর্জন’ শীর্ষক গোলটেবিল আলোচনায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিল্পমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

দু’দিনব্যাপী এশিয়ান টাইমস চতুর্থ গ্লোবাল বিজনেস সামিট-২০১৮ উপলক্ষে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

বাংলাদেশে অর্জিত সাম্প্রতিক অর্থনৈতিক অগ্রগতির উল্লেখ করে শিল্পমন্ত্রী বলেন, ‘গত তিন বছরে বাংলাদেশ ৭ শতাংশেরও বেশি জিডিপি প্রবৃদ্ধি অর্জন করছে। একই সাথে বৈদেশিক মুদ্রা রিজার্ভ ৩০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার ছাড়িয়ে গেছে। এ দেশের তৈরি পোশাক শিল্প বিশ্বে দ্বিতীয় স্থান অধিকার করার পাশাপাশি চাল উৎপাদনে বাংলাদেশ চতুর্থ, জনশক্তি রফতানিতে পঞ্চম এবং রেমিট্যান্স আহরণে বাংলাদেশ অষ্টম স্থানে রয়েছে।’

অন্তর্জাতিক রেটিং এজেন্সি প্রাইস ওয়াটার হাউজ কুপারস এর মতামত তুলে ধরে তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ ২০৩০ সাল নাগাদ বিশ্বের তিনটি দ্রুত বর্ধণশীল অর্থনীতির মধ্যে একটিতে পরিণত হবে।’

আমির হোসেন আমু বলেন, বিনিয়োগের জন্য দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশ সবচেয়ে উৎকৃষ্ট স্থান। দেশি-বিদেশি বিনিয়োগ আকৃষ্ট করতে বর্তমান সরকার ১০০টি অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে তুলছে। এসব অর্থনৈতিক অঞ্চলে বিনিয়োগকারীদের বিশেষ প্রণোদনা ও আর্থিক সুবিধা দেয়া হচ্ছে।

তিনি এসব সুবিধা উপভোগ করে বাংলাদেশে বিনিয়োগে এগিয়ে আসতে ভারতীয় উদ্যোক্তাদের প্রতি আহ্বান জানান। এশিয়ান টাইমস চতুর্থ গ্লোবাল বিজনেস সামিট দ্বিপাক্ষিক ও বহুপাক্ষিক ব্যবসা ও বিনিয়োগ সম্পর্ক জোরদারের মাধ্যমে অংশগ্রহণকারী দেশগুলোর অর্থনীতিকে নতুন উচ্চতায় নিয়ে যাবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

পিলখানায় নিহতদের সমাধিতে শ্রদ্ধা জানাবে বিএনপি

পিলখানায় বিডিআর বিদ্রোহের ঘটনায় নিহতদের সমাধিতে শ্রদ্ধা জানাবে বিএনপি। রোববার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে রাজধানীর বনানী সামরিক কবরস্থানে শ্রদ্ধা নিবেদন করবে দলটি।

বিএনপি চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইং কর্মকর্তা শায়রুল কবির খান এ তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি জানান, প্রতিবছরের মতো এবারও বিএনপির পক্ষ থেকে পিলখানায় নিহত সেনাদের সমাধিতে শ্রদ্ধা জানানো হবে। বিএনপির একটি প্রতিনিধি দল শ্রদ্ধা নিবেদনে অংশ নেবেন বলে জানা গেছে।

চকরিয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় দুই সংবাদকর্মী আহত

চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের চকরিয়ার হারবাং এলাকায় সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন যমুনা টেলিভিশনের দুই সংবাদকর্মীসহ তিনজন।

আহতরা হলেন- যমুনা টেলিভিশনের চট্টগ্রামের স্টাফ রিপোর্টার হোসেন জিয়াদ, ক্যামেরাপারসন নাসির উল আলম ও গাড়ির চালক মিন্টু দাশ।

রোববার সকাল ৮টার দিকে মহাসড়কের আজিজনগর এলাকায় বিপরীত দিক থেকে আসা একটি তেলবাহী ট্রাকের সংঘর্ষে আহত হন তারা।

হারবাং পুলিশ ফাড়ির আইসি আবুল কালাম আজাদ জানান, ভোর ৬টার দিকে চট্টগ্রাম থেকে কক্সবাজারমুখি যমুনা টেলিভিশনের গাড়ির সাথে বিপরীতমুখি তেলের ট্রাকের মুখোমুখি সংর্ঘষ হয়। এতে যমুনা টেলিভিশনের ৩ সংবাদকর্মী গুরুতর আহত হয়। জব্দ করা হয়েছে ঘাতক গাড়িটি।

চলে গেলেন হার্টথ্রব নায়িকা শ্রীদেবী

বলিউড তারকা শ্রীদেবী মারা গেছেন। ৫৪ বছর বয়সে এই হিরোইন দুবাইতে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। শনিবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মারা যান তিনি। এ সময় তার বয়স হয়েছিল ৫৪ বছর। শ্রীদেবীর মৃত্যুতে বলিউডে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

তিনি বিয়ে করেছিলেন চিত্র প্রযোজক বনি কাপুরকে। শ্রীদেবীর মৃত্যুর সংবাদটি গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন তার স্বামীর ছোট ভাই সঞ্জয় কাপুর।

ভারতীয় গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়, একটি পারিবারিক অনুষ্ঠানে অংশ নিতে দুবাই আসেন শ্রীদেবী। এ সময় সঙ্গে ছিলেন স্বামী বনি কপূর ও ছোট মেয়ে খুশি। সেখানে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে মৃত্যু হয় তার।

১৯৬৭ সালে শিশুশিল্পী হিসেবে রূপালী পর্দায় তার অভিষেক ঘটে। ‘আম্মা ইয়ানগার আয়াপ্পান’ সিনেমার মাধ্যমে তার সিনেমার যাত্রা শুরু। এখানে তিনি তার ক্যারিয়ার শুরু করেন শিশু শিল্পী হিসেবে। ভারতের অন্যতম সেরা নায়িকা ছিলেন তিনি। ২০১৩ সালে তাকে ভারতের চতুর্থ সর্বোচ্চ সম্মান পদ্মশ্রী পদকে ভূষিত করা হয়।

শ্রীদেবী তামিল, তেলেগু, হিন্দি, মালায়ালাম এবং কিছু কন্নড় সিনেমায় চুটিয়ে কাজ করেছেন। তার ঝুলিতে ৩০০টি সিনেমা রয়েছে। ৫০ বছরেরও বেশি সময় বক্স অফিসে রাজত্ব করেছেন শ্রীদেবী। অগণিত বলিউডের সিনেমায় তিনি তার অভিনয় দক্ষতার ছাপ রেখেছেন। সংসারে মনযোগী হওয়ার পর একটি দীর্ঘ বিরতি নিয়েছিলেন তিনি। পরে ২০১২ সালে ‘ইংলিশ ভিংলিশ’ সিনেমার মাধ্যমে বলিউডে কামব্যাক করেন। ২০১৭ সালে শ্রীদেবীর ‘মম’ ছবিটি বক্স অফিসে যথেষ্ট সাফল্য পেয়েছিল। এটিই তার শেষ সিনেমা।

‘মিস্টার ইন্ডিয়া’ ছাড়াও ‘সাদমা’ সিনেমা বলিউডে শ্রীদেবীর আলাদা জায়গা গড়ে দিয়েছিল। অনেক সিনেমা সমালোচকরাও বলেন, শ্রীদেবী অভিনীত ‘লামহে’ ভারতীয় সিনেমার ১০০ বছরের ইতিহাসে সেরা ১০টি রোমান্টিক সিনেমার মধ্যে অন্যতম। কথা ছিল, ‘মিস্টার ইন্ডিয়া ২’ এবং ‘ইংলিশ ভিংলিশ ২’ এর মাধ্যমে আবারও পর্দা কাঁপাবেন তিনি। কিন্তু সেই যাত্রা থেমে গেলো মাঝপথেই।