আজ শুক্রবার, ২৩ এপ্রিল ২০২১, ০১:৫৮ অপরাহ্

শিরোনাম

প্রত্যয় বিশ্বাস :

অনার্স পড়ুয়া কোন ছাত্রীর নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে যখন অভিভাবকরা দীর্ঘ ৪ ঘন্টা ধরে পরীক্ষা কেন্দ্রের সামনে উপস্থিত থাকে, তখন বোঝা যায় আমাদের দেশে মেয়েদের নিরাপত্তা আজ কোথায় এসে দাড়িয়েছে।

১১ ডিসেম্বর ২০১৯, আজ থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত ৭ কলেজের অনার্স ১ম বর্ষের ফাইনাল পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে কেন্দ্র গুলো শত শত অভিভাবকের উপস্থিতি লক্ষনীয়।

শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা দেওয়ার জন্য অন্য কেন্দ্রে যেতে হয়। তাই, ছাত্রীদের কে একা অন্য কোন পরীক্ষা কেন্দ্রে পাঠাতে নিরাপদ বোধ করছেন অভিভাবকরা৷ তাই শত ব্যস্ততা কেউ উপেক্ষা করে ছুটে এসেছেন নিজের সন্তান বা নিজের নিরাপত্তার স্বার্থে। আজ আমাদের সমাজে ধর্ষণ ও ইভটিজিং এর পরিমাণ কি পরিমাণ বৃদ্ধি পাচ্ছে তার এক অন্য দৃষ্টান্ত আমরা তখনই পাই যখন অনার্সে অধ্যয়নরত ছাত্রীর নিরাপত্তার জন্য অভিভাবক কে ছুটে আসতে হয় পরীক্ষার কেন্দ্রে। আর অপেক্ষা করতে দীর্ঘ ৪ ঘন্টা।

উপস্থিতরত একজন অভিভাবক বলেন যে, আমরা মেয়ে বাসার বাইরে পাঠিয়ে কোন সময় নিরাপদ মনে করি না৷ এমন কি তারা নিজেদের ক্যাম্পাসেও নিরাপদ নয়। ক্যাম্পাসেই তাদের কে বিভিন্ন রাজনৈতিক ভয়ভীতি প্রদর্শন করে হ্যারেজমেন্ট করা হয় তাদের সাথে। আর মেয়েরা ভয়তে প্রতিবাদ করার সাহসও পাই না।

বিশেষজ্ঞরা মনে করেন দেশে নারীর প্রতি সহিংসতার বিরুদ্ধে যথাযথ আইন থাকলেও এর সঠিক প্রয়োগ হয় না। এমন কি আজ যদি কোন মেয়ে সহিংসতার শিকার হয়ে প্রশাসনের কাছে যায় তখন প্রসাশনই আরো অধিক পরিমাণে হ্যারেজমেন্ট করে থাকে

0Shares

 
 
 

আরও পড়ুন

 

Top