শিরোনাম
  গোলাপি বলে মানিয়ে নিতে মিরাজদের কঠোর পরিশ্রম       অনুদানের চলচ্চিত্র ‘অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া’র যাত্রা হলো শুরু       বাঘ উদ্ধারের গল্প       তারেক রহমান ডিজিটাল দেশ গড়ার কাজ শুরু করেন : ফখরুল       শোভন-রাব্বানী ও ৫ এমপিসহ ১০৫ জনের সম্পদের অনুসন্ধানে দুদক       বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী : ৫৪ স্থানে বসছে ক্ষণ গণনার ডিসপ্লে       লিবিয়ায় বিমান হামলায় বাংলাদেশি নিহত, আহত ১৫       পেঁয়াজের দাম কেজিতে কমেছে ৭০ টাকা       চট্টগ্রামে’র নগরীর হালিশহর এইচ ব্লকে নর্দমার পাশ থেকে নবজাতক উদ্ধার       অনিয়ম-দূর্নীতির আখড়া, সেবাপ্রার্থীদের দূর্ভোগ : বিআরটিএ অফিসে জেলা প্রশাসকের ঝটিকা অভিযান,  ২ দালালকে কারাদন্ড    

আজ মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৯, ০৩:৫৭ অপরাহ্

নিজস্ব প্রতিবেদক :

রাজধানীর নয়াপল্টনে অবিভক্ত ঢাকার সাবেক মেয়র ও বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান সাদেক হোসেন খোকার দেশে দ্বিতীয় নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এরআগে দলের ভাইস চেয়ারম্যানের মরদেহে দলীয় পতাকা ও ফুল দিয়ে বিএনপি ও এর অঙ্গ-সহযোগি সংগঠনের নেতাকর্মীরা শেষ শ্রদ্ধা জানান।

আজ বাদ যোহর রাজধানীর নয়াপল্টন বিএনপির কার্যালয়ের সামনে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।

জানাজায় বিএনপি নেতা মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, মওদুদ আহমদ, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, মো. শাহজাহান, শামসুজ্জামান দুদু, নিতাই রায় চৌধুরী, রুহুল কবির রিজভী, মাহবুব উদ্দিন খোকন, হাবিব উন নবী খান সোহেল, ফজলুল হক মিলন, এমরান সালেহ প্রিন্স, শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানীসহ দলটির অঙ্গ-সহযোগি সংগঠনের হাজার হাজার নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

জানাজার নামাজের আগে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, সাদেক হোসেন খোকা যে সময় মারা গেলেন তখন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া মিথ্যা মামলায় কারাগারে। খোকাকে শেষ দেখা তিনি দেখতে পেলেন না। আর আমরা খোকার এই অকালে চলে যাওয়ার বহু দু:খ প্রকাশ করছি।

ফখরুল বলেন, সাদেক হোসেন খোকা চলে যাওয়ায় বিএনপিতে শুন্যতা সৃষ্টি হলো তা পূরণ হওয়ার নয়। এরআগে খোকার জানাজা জাতীয় সংসদের দক্ষিণ প্লাজায় অনুষ্ঠিত হয়। পরে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে সর্বস্তরের মানুষ শেষ শ্রদ্ধা নিবেদন করেন একাত্তরের এই গেরিলা যোদ্ধাকে।

বিকেল ৩টায় ঢাকা সিটি কর্পোরেশনে মরহুমের লাশ নিয়ে যাওয়া হবে এবং সেখানে নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। নামাজে জানাজা শেষে মরহুমের নিজস্ব বাসভবনে লাশ নিয়ে যাওয়া হবে। এরপর বাদ আছর মরহুমের বাসভবন থেকে লাশ ধুপখোলা মাঠে নিয়ে যাওয়া হবে এবং সেখানে শেষ নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। জানাজা শেষে জুরাইন কবরস্থানের বাবা-মা’র কবরের পাশে খোকাকে দাফন করা হবে।

সংসদের জানাজায় অংশ নেন ডা. একিউএম বদরুদ্দোজা চৌধুরী, ডক্টর কর্নেল অলি আহমদ বীর বিক্রম (অব.), তোফায়েল আহমেদ, আ স ম ফিরোজ, মেজর (অব.) আবদুল মান্নান, বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী, রাশেদ খান মেনন, মশিউর রহমান রাঙা, ড. মাহবুব উল্লাহ, মেজর জেনারেল (অব.) সৈয়দ মুহম্মদ ইবরাহিম, সাবের হোসেন চৌধুরী, শামসুল হক টুকু, ঢাকা উত্তর সিটির মেয়র আতিকুল ইসলাম।

বিএনপির পক্ষে দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আবদুল মঈন খান, ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল নোমান, মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন আহমেদ, বিএনপি নেতা মিজানুর রহমান সিনহা, জাফরুল ইসলাম চৌধুরী, জয়নুল আবদিন ফারুক, আবুল খায়ের ভূইয়া, হারুন অর রশিদ, উকিল আব্দুস সাত্তার, জাহিদুর রহমান, এম মোরশেদ খান, মেজর (অব.) আখতারুজ্জামান, নাজিম উদ্দিন আলম, রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু, রুহুল আলম চৌধুরী, এমরান সালেহ প্রিন্স প্রমুখ।

 
 
 

আরও পড়ুন

 

Top