শিরোনাম

আজ রবিবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯, ০১:৪৮ অপরাহ্

কলকাতার বাংলা ছবির জনপ্রিয় নায়িকা শ্রাবন্তী। ‘যদি একদিন’ এই নায়িকার বাংলাদেশের প্রযোজিত প্রথম কোনও সিনেমায় অভিনয়। ৮ মার্চ মুক্তি পেয়েছে এই গ্লামারাস নায়িকার ছবিটি। এর প্রচারণায় অংশ নিতে ঢাকায় এসে তিনি জানিয়েছেন নানা অনুভূতি ও অভিজ্ঞতার কথা।

বাংলাদেশে কাজ প্রসঙ্গে শ্রাবন্তী বলেন, বাংলাদেশ আমার অনেক প্রিয়। খুব কাছের। মাত্র তিরিশ মিনিটের পথ। বলতে গেলে আমি কলকাতাতেই আছি। এখানের মানুষের ভালোবাসা আমার মন ছুঁয়ে গেছে। আমার পূর্বপুরুষ বাংলাদেশি। আমার দাদু বরিশালের। আমি এখানকার মেয়ে। এটাও আমার দেশ।

তিনি আরও বলেন, আমরা খুব গর্ববোধ করি। আমরা বাঙ্গাল বলে পরিচয় দিই। আমি দাদুর কাছে বাংলাদেশের কথা খুব শুনতাম। আমার ছোটবেলায় খুব ইচ্ছে ছিল এদেশে আসার। আমার মন বলত একদিন না একদিন যাবই। বলে না মন থেকে যদি কেউ কিছু চায় ভগবান সেটা পূরণ করে। তাই আমি বাংলাদেশে আসতে পেরেছি।

‘যদি একদিন’ সিনেমায় যুক্ত হবার বিষয়ে শ্রাবন্তী বলেন, রাজ (মুহাম্মাদ মোস্তফা কামাল রাজ) আমার একটা শুটিং এ গিয়েছিলেন। সেখানেই সিনেমাটি করার প্রস্তাব দেন। ‘ভাইজান এলো রে’ ছবির আগেই এই প্রস্তাব পেয়েছিলাম। আগে আমি একক কোনও বাংলাদেশের ছবি করিনি। তবে আমি একা ছবি করবো এটা জেনে টেনশন কাজ করছিল। কারণ এখানে আমি কাউকে চিনি না। যদিও বাঙালি ইন্ডাস্ট্রি। কলকাতায় যেমন ছোট বয়স থেকে কাজ করছি, সবাই চেনে।

তবে এখানের পরিবেশটা আলাদা। আগে আমার কাছে বাংলাদেশ এতটা পরিচিত ছিল না। আমি গল্প জানতে চেয়েছিলাম। রাজ বললেন, গল্প শুনে আপনার পছন্দ হবে। রাজ কলকাতায় গিয়ে গল্প শোনায়। চোখ কান বুজে আমি একবারে আমি বলেছিলাম এই ছবিটা করতে চাই। পারিশ্রমিকের ব্যাপারটা পরে আসে। গল্প শুনেই আমার ভালো লাগে। আমি রাজি হয়ে যাই।

বেঙ্গল মাল্টিমিডিয়া প্রযোজিত ‘যদি একদিন’ ছবিতে শ্রাবন্তীর বিপরীতে রয়েছেন তাহসান খান।

আরও অভিনয় করেছেন তাসকিন রহমান, সাবেরী আলম, ফখরুল বাশার মাসুম, মিলি বাশারসহ অনেকে। গুরুত্বপূর্ণ একটি চরিত্রে অভিনয় করেছে শিশুশিল্পী আফরিন শিখা রাইসা।

 
 
 

আরও পড়ুন

 

Top