শিরোনাম

আজ শনিবার, ১৬ নভেম্বর ২০১৯, ০৬:৫৯ পূর্বাহ্ন

ফিচার ডেস্ক : 

স্মার্টফোনের একটি মেসেজ বা লাইকে মানব শরীরে ছড়িয়ে পড়ে ‘ডোপামিন’ নামে কেমিক্যাল। মদ বা সিগারেট খেলে যে সুখ পাওয়া যায়, একই সুখ পাওয়া যায় এই ডোপামিন থেকে। মদপান বা ধূমপানের মতো স্মার্টফোনও এক ধরনের নেশা।

তাই এই আসক্তি কমাতে নিম্নোক্ত কাজগুলো করতে পারেন :

১. ল্যাপটপ বা স্মার্টফোনের পরিবর্তে অবসর সময় সঙ্গী, বন্ধু বা পরিবারের সঙ্গে কাটান।
২. এর জন্য প্রথমেই নিজের বাড়িতে একটি ‘নো-টেক জোন’ তৈরি করুন।
৩. সকালে ঘুম থেকে ওঠার জন্য মোবাইলে নয়, ঘড়িতে অ্যালার্ম দিন।
৪. কখনোই খেতে খেতে মোবাইল ফোন চেক করবেন না।
৫. অফিসে বা কলেজের লাঞ্চটাইমে অন্যদের সঙ্গে গল্প করুন।
৬. ঘুমানোর সময় বালিশের পাশে নয়, ফোন রাখুন দূরে।

৭. অবসর সময় কাটাতে দিনের শুরু বা সন্ধ্যায় জিম করতে পারেন।
৮. সঙ্গীর সঙ্গে টেলিভিশন দেখুন। তাতে আসক্তির ঝুঁকিও কম।
৯. বাসায় রাখা নিজের পছন্দের বই পড়া শুরু করুন।
১০. সকালের চা না খাওয়া পর্যন্ত ফেসবুক চেক করবেন না।
১১. অফিসের জরুরি মিটিংয়ের দিন ইনস্টাগ্রামে সময় কাটাবেন না।
১২. বাসায় বা কর্মস্থলে স্মার্টফোনে গেম নয়।
১৩. ছুটির দিনে পরিবার বা বন্ধুদের সময় দিন।
১৪. গান শুনতে চাইলে অন্য উপায় বেছে নিন।

Share on Facebook Share on Twitter

আরও পড়ুন