শিরোনাম

আজ মঙ্গলবার, ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২০, ০৩:৪৮ পূর্বাহ্ন

চীনের বাইরে ২০টি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে মরণঘাতী করোনাভাইরাস। প্রতিবেশি ভারতের থাবা বসিয়েছে এই ভাইরাস। এরই মধ্যে দেশটির কেরালায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত দ্বিতীয় রোগীর।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার চীন-ফেরত এক তরুণী কেরালায় করোনাভাইরাস আক্রান্ত বলে জানিয়েছিল দেশটির কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

দ্বিতীয় করোনাভাইরাস আক্রান্তেরও চীন যোগ রয়েছে বলে সংবাদ সংস্থা এএনআই সূত্রে জানা গেছে। আপাতত হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে রাখা হয়েছে ওই ব্যক্তিকে। তার শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল হলেও ডাক্তারদের কড়া নজরে রয়েছেন তিনি।

করোনাভাইরাস নিয়ে আতঙ্কে দিন গুনছিল সরকার থেকে জনগণ, সেই আশঙ্কাকেই সত্যি করে কেরালায় গত বৃহস্পতিবার প্রথম করোনার ভাইরাসের দেখা পাওয়া যায়। চীনের উহান প্রদেশ থেকে আসা এক শিক্ষার্থীর শরীরে খোঁজ মেলে এই ভাইরাসের। উহান বিশ্ববিদ্যালয়ের ওই শিক্ষার্থীকে বর্তমানে আলাদা করে রাখা হয়েছে।

চীনে কার্যত মহামারী আকার নিয়েছে করোনাভাইরাস। ইতোমধ্যেই করোনার গ্রাসে মৃত্যু হয়েছে তিন শতাধিক মানুষের।

বর্তমানে এই ভাইরাসে আক্রান্ত প্রায় ১২ হাজার মানুষ। এই পরিস্থিতিতে করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবের কেন্দ্রস্থল চীনের হুবেই প্রদেশ থেকে বিশেষ বিমানে ভারতীয় নাগরিকদের দেশে ফিরিয়ে নেওয়া হয়েছে। শনিবারই ৩২৪ জন ভারতীয়কে নিয়ে চীনের উহান শহর থেকে দিল্লি পৌঁছায় এয়ার ইন্ডিয়ার বিশেষ জাম্বো বিমান B747।

মানেসরে ভারতীয় সেনাবাহিনী আইসোলেটেড হল তৈরি করেছে। জানা গেছে, চীনের হুবেই প্রদেশের উহান থেকে যারা বিশেষ বিমানে দিল্লি এসেছেন তাদের প্রথমে আইসোলেটেড হলে পরীক্ষা করা হয়। প্রতিবেশী দেশ থেকে এদিন যাদের ফিরিয়ে আনা হয়েছে তাদের মধ্যে ২১১ জন শিক্ষার্থী ও ১১০ জন সে দেশে কর্মরত ছিলেন।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা করোনাভাইরাসকে ‘গ্লোবাল এমার্জেন্সি’ বলে ঘোষণা করেছে। মার্কিন নাগরিকদের চীনে প্রবেশের ক্ষেত্রে নিয়ন্ত্রণ জারি করেছে ট্রাম্প প্রশাসন। এছাড়াও জারি করা হয়েছে জনস্বাস্থ্য জরুরি অবস্থা। সূত্র: ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস

 
 
 

আরও পড়ুন

 

Top